ইনভার্টার সার্কিট আমরা...

ইনভার্টার সার্কিট আমরা সবাই মোটামুটি ইনভার্টার সার্কিট সম্পর্কে পরিচিত। যে ইলেকট্রনিক সার্কিট ডিসি পাওয়ারকে এসি পাওয়ার এ কনভার্ট করে তাকে ইনভার্টার সার্কিট বলে। এটি বিভিন্ন মানের, বিভিন্ন পাওয়ারের হতে পারে। আমরা এখানে 12 ভোল্ট ডিসি টু 220 ভোল্ট এসি ইনভার্টার সার্কিট নিয়ে আলোচনা করবো। এটি 35 ওয়াট পাওয়ার আউটপুট দিবে। আমরা আরো বেশি পাওয়ারের আউটপুট পেতে সার্কিটে আরো মসফেট যুক্ত করবো। প্রয়োজনীয় কম্পোনেন্ট সমূহঃ • 12V ব্যাটারি – 1 টি • মসফেট IRF 630 – 2 টি • 2N2222 ট্রানজিস্টর – 2 টি • 2.2uf ক্যাপাসিটর – 2টি • রেজিস্টর • 680 ওহম – 2 টি • 12K – 2টি • 12 ভোল্ট টু 220 ভোল্ট সেন্টার টেপ স্টেপআপ ট্রান্সফরমার

সার্কিট ডায়াগ্রামঃ

সার্কিটের বৈশিষ্ট্যঃ

  1. সার্কিটে যে ইনভার্টার ইপ্লিমেন্ট করা হয়েছে তা মূলত স্কয়ার ওয়েভ ইনভার্টার। এটি পিউর সাইন ওয়েভ এসি নয়।
  2. এটি মোটামুটি 35 ওয়াট পাওয়ারের লোড অপারেটিং করতে পারবে। কার্যকারিতাঃ সার্কিটটিকে আমরা তিনটি ব্লকে ভাগ করতে পারি – • অসিলেটর • অ্যামপ্লিফায়ার • ট্রান্সফরমার 50 Hz অসিলেটর বলতে বুঝায় যা 50 Hz ফ্রিকুয়েন্সির এসি সাপ্লাই দিবে। আমরা সার্কিটে একটি স্টাবল মাল্টিভাইব্রেটর স্থাপন করে এটি পেতে পারি। যা আমাদেরকে 50 Hz স্কয়ার ওয়েভ এসি সরবরাহ করবে। এই সার্কিটের R1, R2, R3, R4, C1, C2, T2 এবং T3 এর সমন্নয়ে আমরা অসিলেশন পাবো। এখানে প্রতিটি ট্রানজিস্টরই ইনভার্টিং স্কয়ার ওয়েভ সরবরাহ করে। আর ফ্রিকুয়েন্সির মান নির্ভর করে R1, R2 এবং C1 এর মানের উপর। মাল্টিভাইব্রেটর যে স্কয়ার ওয়েভ অসিলেশন উৎপন্ন করে তার ফ্রিকুয়েন্সির মান নির্ণয়ের সূত্র – F= 1 / (1.38R2C1) অসিলেটর হতে পাওয়া ইনভার্টিং সিগন্যালকে আমরা মসফেট T1 এবং T2 এর সাহায্যে অ্যামপ্লিফাই করবো। এই অ্যামপ্লিফাইকৃত (বর্ধিত) সিগন্যালকে আমরা স্টেপ আপ ট্রান্সফরমারের প্রাইমারি সাইট (সেন্টার টেপ 12 ভোল্ট) এ সংযোগ করবো ডায়াগ্রাম অনুযায়ি। ব্যাস হয়ে গেল …. কিছু নিজস্ব পরিবর্তনঃ (যদি চান) 12 ভোল্ট ব্যাটারির পরিবর্তে আপনি চাইলে 24 ভোল্ট ব্যাটারি ব্যবহার করতে পারেন। সেক্ষেত্রে লোড 85 ওয়াট হবে। কিন্তু এই সার্কিটটি এর জন্য উপোযুক্ত নয়। ইনভার্টারের ক্যাপাসিটি বাড়াতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই মসফেটের পরিমান বাড়াতে হবে। ব্যাস, হয়ে গেল আপনার ফায়ার এলার্ম প্রজেক্ট। আশা করি সবাই খুব সহজেই বুঝতে পেরেছেন।

https://www.facebook.com/western.ae/ https://www.facebook.com/western.ae/photos/a.1476455375813521.1073741828.1474941435964915/1491988767593515/ইনভার্টার সার্কিট আমরা সবাই মোটামুটি ইনভার্টার সার্কিট সম্পর্কে পরিচিত। যে ইলেকট্রনিক সার্কিট ডিসি পাওয়ারকে এসি পাওয়ার এ কনভার্ট করে তাকে ইনভার্টার সার্কিট বলে। এটি বিভিন্ন মানের, বিভিন্ন পাওয়ারের হতে পারে। আমরা এখানে 12 ভোল্ট ডিসি টু 220 ভোল্ট এসি ইনভার্টার সার্কিট নিয়ে আলোচনা করবো। এটি 35 ওয়াট পাওয়ার আউটপুট দিবে। আমরা আরো বেশি পাওয়ারের আউটপুট পেতে সার্কিটে আরো মসফেট যুক্ত করবো। প্রয়োজনীয় কম্পোনেন্ট সমূহঃ • 12V ব্যাটারি – 1 টি • মসফেট IRF 630 – 2 টি • 2N2222 ট্রানজিস্টর – 2 টি • 2.2uf ক্যাপাসিটর – 2টি • রেজিস্টর • 680 ওহম – 2 টি • 12K – 2টি • 12 ভোল্ট টু 220 ভোল্ট সেন্টার টেপ স্টেপআপ ট্রান্সফরমার

সার্কিট ডায়াগ্রামঃ

সার্কিটের বৈশিষ্ট্যঃ

  1. সার্কিটে যে ইনভার্টার ইপ্লিমেন্ট করা হয়েছে তা মূলত স্কয়ার ওয়েভ ইনভার্টার। এটি পিউর সাইন ওয়েভ এসি নয়।
  2. এটি মোটামুটি 35 ওয়াট পাওয়ারের লোড অপারেটিং করতে পারবে। কার্যকারিতাঃ সার্কিটটিকে আমরা তিনটি ব্লকে ভাগ করতে পারি – • অসিলেটর • অ্যামপ্লিফায়ার • ট্রান্সফরমার 50 Hz অসিলেটর বলতে বুঝায় যা 50 Hz ফ্রিকুয়েন্সির এসি সাপ্লাই দিবে। আমরা সার্কিটে একটি স্টাবল মাল্টিভাইব্রেটর স্থাপন করে এটি পেতে পারি। যা আমাদেরকে 50 Hz স্কয়ার ওয়েভ এসি সরবরাহ করবে। এই সার্কিটের R1, R2, R3, R4, C1, C2, T2 এবং T3 এর সমন্নয়ে আমরা অসিলেশন পাবো। এখানে প্রতিটি ট্রানজিস্টরই ইনভার্টিং স্কয়ার ওয়েভ সরবরাহ করে। আর ফ্রিকুয়েন্সির মান নির্ভর করে R1, R2 এবং C1 এর মানের উপর। মাল্টিভাইব্রেটর যে স্কয়ার ওয়েভ অসিলেশন উৎপন্ন করে তার ফ্রিকুয়েন্সির মান নির্ণয়ের সূত্র – F= 1 / (1.38R2C1) অসিলেটর হতে পাওয়া ইনভার্টিং সিগন্যালকে আমরা মসফেট T1 এবং T2 এর সাহায্যে অ্যামপ্লিফাই করবো। এই অ্যামপ্লিফাইকৃত (বর্ধিত) সিগন্যালকে আমরা স্টেপ আপ ট্রান্সফরমারের প্রাইমারি সাইট (সেন্টার টেপ 12 ভোল্ট) এ সংযোগ করবো ডায়াগ্রাম অনুযায়ি। ব্যাস হয়ে গেল …. কিছু নিজস্ব পরিবর্তনঃ (যদি চান) 12 ভোল্ট ব্যাটারির পরিবর্তে আপনি চাইলে 24 ভোল্ট ব্যাটারি ব্যবহার করতে পারেন। সেক্ষেত্রে লোড 85 ওয়াট হবে। কিন্তু এই সার্কিটটি এর জন্য উপোযুক্ত নয়। ইনভার্টারের ক্যাপাসিটি বাড়াতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই মসফেটের পরিমান বাড়াতে হবে। ব্যাস, হয়ে গেল আপনার ফায়ার এলার্ম প্রজেক্ট। আশা করি সবাই খুব সহজেই বুঝতে পেরেছেন।

Reply to this thread

This site uses cookies and other tracking technologies to differentiate between individual computers, personalized service settings, analytical and statistical purposes, and customization of content and ad serving. This site may also contain third-party cookies. If you continue to use the site, we assume it matches the current settings, but you can change them at any time. More info here: Privacy and Cookie Policy